বাংলাদেশ টাইম

প্রচ্ছদ» দেশের খবর »আড়াই মাস পেরোতেই স্বপ্ন-সংসার সব গেল শিকলবন্দি এই দিপালীর!
আড়াই মাস পেরোতেই স্বপ্ন-সংসার সব গেল শিকলবন্দি এই দিপালীর!

Monday, 8 August, 2016 10:48pm  
A-
A+
আড়াই মাস পেরোতেই  স্বপ্ন-সংসার সব গেল শিকলবন্দি এই দিপালীর!

গাইবান্ধা : বিয়ের আড়াই মাসের মধ্যে পাগল পরিচয়ে শিকলবন্দি হয়ে তরুণী গৃহবধূ দিপালী রানীকে বাবার বাড়িতে ফিরে আসতে হয়। তার ওপর ভূতের আছর হয়েছে বলে পায়ে লোহার শিকল পরিয়ে বেঁধে রাখা হয়েছে। লোহার বেড়ি লাগিয়ে ফেলে রাখা হয়েছে তাকে বাড়ির উঠোনে। কারও সঙ্গে সে কথা বলে না। মাঝে মাঝে মাথা তুলে তাকিয়ে দেখে এদিক ওদিক। 

দিপালী সদর উপজেলার বোয়ালী ইউনিয়নের চান্দেরঘাট মাঝিপাড়া গ্রামের সুশীল কুমার দাসের মেয়ে। 

দিপালীর বাবা হতাশ কণ্ঠে জানান, এ মেয়েকে এখন কী করব।

সরেজমিন দেখা গেল, উঠোনে উৎসুক মানুষের ভিড়। কেউ বলছেন, ‘পাগলী’ বানিয়ে ফেরত পাঠানো হয়েছে বাপের বাড়ি। স্বামী গণেশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ওর ওপর ভূতের আছর পড়েছে। গ্রাম্য কবিরাজ ওঝার কাছে ঝাড়-ফুঁকসহ কবিরাজি চিকিৎসা হয়েছে। দিপালী তিন বোন এক ভাইয়ের মধ্যে সবার বড়।

মা অমলা রানী জানান, ২০০২ সালের শেষ দিকে কিশোরী দিপালী অস্বাভাবিক আচরণ করতে থাকে। কম কথা বলা, একা জোরে গান গাওয়া, হঠাৎ করে বাড়ি থেকে রাস্তায় বেরিয়ে পড়ে। মেয়ের এমন আচরণ দেখে দরিদ্র মাছ ব্যবসায়ী বাবা চিন্তিত হয়ে পড়েন। তাকে ঝাড়-ফুঁকে কবিরাজের কাছে নিয়ে যাওয়া হয়। চিকিৎসা চলে দীর্ঘদিন। কিন্তু তাতে তেমন কোনো পরিবর্তন আসে না। একপর্যায়ে কবিরাজ সুশীল দাসকে পরামর্শ দেন মেয়ের বিয়ে দেয়ার জন্য। বিয়ের পর এসব ভালো হয়ে যাবে।

এই ধরনের আরও পোস্ট -
   

আরও খবর

TOP