বাংলাদেশ টাইম

প্রচ্ছদ» ফিচার »কোনো মায়ের কান্না কি তার বুকে বাজে না: প্রধানমন্ত্রী
কোনো মায়ের কান্না কি তার বুকে বাজে না: প্রধানমন্ত্রী

Tuesday, 17 February, 2015 03:15  
A-
A+
কোনো মায়ের কান্না কি তার বুকে বাজে না: প্রধানমন্ত্রী
বাংলাদেশ টাইম : একের পর এক পেট্রোল বোমা, আগুন আর হাতবোমায় সাধারণ মানুষ হতাহতের ঘটনায় অবরোধ আহ্বানকারী খালেদা জিয়ার হৃদয়ে কি কোনো বেদনার সৃষ্টি হয় না-তা নিয়ে প্রশ্ন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

দেড় মাসের অবরোধের আগুনে পুড়ে নিহতদের স্বজন এবং দগ্ধদের যন্ত্রণার কথা শোনার পর এ প্রশ্ন করেছেন তিনি। রাজনৈতিক কর্মসূচির নামে যারা মানুষ পুড়িয়ে মারছে তাদের বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

মঙ্গলবার জাতীয় যাদুঘরে ‘বিএনপি-জামাতের অগ্নি সন্ত্রাস-লুণ্ঠিত মানবতা’ শীর্ষক আলোচনা সভায় শেখ হাসিনা বলেন, “আমি সকলকে বলব- অন্তত বিএনপি নেত্রীকে বলেন, মানুষের লাশের, মানুষ খুনের রাজনীতি বন্ধ করেন।

“আমরা মানুষকে বাঁচানোর চেষ্টা করছি। আমরা দেশের মানুষের জন্য কাজ করছি। এভাবে, নিরীহ মানুষকে পুড়িয়ে হত্যা- এটা কোনোভাবেই মেনে নেওয়া যায় না।”

আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় প্রচার ও প্রকাশনা উপ-পরিষদ আয়োজিত এই আলোচনা সভায় মন্ত্রিসভার সদস্য, বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ এবং বাংলাদেশে বিভিন্ন দেশের কূটনীতিকরা উপস্থিত ছিলেন।

রাশিয়া, ভারত, ফিলিস্তিন, আফগানিস্তান, উত্তর কোরিয়া, ভুটান ও লিবিয়ার রাষ্ট্রদূত, শ্রীলঙ্কার ভারপ্রাপ্ত রাষ্ট্রদূত, ভ্যাটিকান, চীন ও ওমানের উপ-রাষ্ট্রদূত, মালদ্বীপ, ইরাক ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের সার্জ ডি অ্যাফেয়ার্স, যুক্তরাষ্ট্র, সিঙ্গাপুর ও পাকিস্তানের কনস্যুলার এবং ইউরোপীয় ইউনিয়ন ও আন্তর্জাতিক রেড ক্রসের প্রতিনিধিরা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

গত ৫ জানুয়ারি অবরোধ শুরুর প্রায় তিন সপ্তাহের মাথায় ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকো মারা গেলে শোকাহত খালেদা জিয়াকে সমবেদনা জানাতে গুলশানে তার কার্যালয়ে যান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সে সময় দরজা না খোলায় কিছুক্ষণ সেখানে দাঁড়িয়ে থেকে ফিরে আসেন প্রধানমন্ত্রী।

এ প্রসঙ্গ টেনে শেখ হাসিনা বলেন, “কোনো মায়ের কান্না কী তার বুকে বাজে না? একটু বুঝে না? একটুও মন কাঁদে না। “যারা মানুষের জীবন নিয়ে খেলা শুরু করেছে- তারা মানুষের কল্যাণ চাইতে পারে না।”

উপস্থিত অগ্নিদগ্ধদের দেখিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “এরা তো কোনো রাজনীতির সাথে নেই। এই নিরীহ মানুষের ওপর কেন হামলা?”

জামায়াতে ইসলামী ধর্মের নামে ‘ভাওতাবাজি’ করছে মন্তব্য করে শেখ হাসিনা বলেন, “দোজখের আগুন কেনো জীবন্ত মানুষকে দেখতে হবে?”

এই ধরনের আরও পোস্ট -
   

আরও খবর

TOP