বাংলাদেশ টাইম

প্রচ্ছদ» ফিচার »ফ্রেমে বন্দী তুষারকণা
ফ্রেমে বন্দী তুষারকণা

Thursday, 12 February, 2015 02:56  
A-
A+
ফ্রেমে বন্দী তুষারকণা
বাংলাদেশ টাইমঃ শীতের বুড়ি ক্রমশ এশিয়া থেকে ইউরোপের দিকে যাচ্ছেন। এশিয়ার বিশাল অঞ্চলে নাতিশীতোষ্ণ মণ্ডলীয় শীত কাটানোর পর এখন বরফকুচি তুষারে ইউরোপকে ঢাকতে মোটামুটি প্রস্তুত বুড়ি। অবশ্য এবার একটু আগেই ইউরোপের বিভিন্ন দেশে তুষারপাত হতে শুরু করেছে। যুক্তরাষ্ট্র এবং যুক্তরাজ্যের বিভিন্ন স্থানে ইতোমধ্যেই তুষারঝড় আঘাত হেনেছে। খোদ লন্ডন শহরেই টানা এক সপ্তাহের তুষারপাতে ঘর থেকে বের হতে পারেননি কেউ। আবহাওয়াবিদদের মতে, আগামী সপ্তাহ নাগাদ আরও এক সপ্তাহের জন্য আঘাত হানতে পারে তীব্র তুষারঝড়। এই তুষার নিয়ে মানুষের জীবনে যেমন গল্পের শেষ নেই, তেমনি আগ্রহেরও শেষ নেই। কিন্তু তুষারকণা এতোই সূক্ষ্ণ যে খালি চোখে একক তুষারকণাকে দেখা যায় না।

সাধারণ মানুষ তুষারকণাকে একভাবে দেখতে অভ্যস্ত হলেও বিজ্ঞানীরা কিন্তু অন্যভাবে দেখতে অভ্যস্ত। তারা অনুবীক্ষণ যন্ত্রের তলায় দেখতে পান তুষারকণাকে। তবে বিজ্ঞানীরা যেভাবে দেখতে পারেন তাতো আর সাধারণ মানুষ দেখতে পারেন না। তাই মাইকেল পেরেজ নামের এক আলোকচিত্রী সম্প্রতি অনেক কষ্ট আর ধৈর্য্য ধরে তুলেছেন তুষারের ছবি। তবে সেটা স্তুপাকৃতির কোনো তুষার নয়। খুব সূক্ষ্ণ তুষারকণাকে একটি কালো ভেলভেট কাপরের উপর রেখে এরপর ছবি তুলেছেন পেরেজ।
অবশ্য তুষারের ছবি তোলার ব্যাপারটি পেরেজের মাথায় হঠ্যাৎ করে আসেনি। এখন থেকে প্রায় ১৩ বছর আগে তার এক শিক্ষকসহ প্রকৃতির সবচেয়ে ক্ষুদ্র এককগুলোর সৌন্দর্য খুঁজে বের করতে ফটোগ্রাফির সাহায্য নেয়ার কথা ভাবেন। সেই থেকেই মূলত কাজ শুরু করেন পেরেজ। নিজের বাড়ির আশেপাশের যাবতীয় ক্ষুদ্র একককে বিশেষ কায়দায় লেন্সের তলায় নিয়ে এসে ছবি তুলেছেন তিনি। সর্বশেষ অনেক কষ্ট করে তিনি তুলতে পেরেছেন তুষারের ছবি। আর এই ছবি তোলার পর শুধু যে পেরেজই বিস্মিত তাই নয়, বিস্মিত বিশ্ববাসীও। কারণ এতো ক্ষুদ্র তুষারকণার শরীরেও যে মনোমুগ্ধকর নকশা থাকতে পারে তা ধারণাই ছিল না অনেকের।

পেরেজের তোলা তুষারের ছবিগুলো একত্র করলে দেখা যায়, বেশিরভাগ তুষারের শরীরেই একই নকশা। জলীয়বাষ্প থেকে সৃষ্ট তুষারকণায় কিভাবে এতো সূক্ষ্ণ নকশার সৃষ্টি হয় তানিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই গবেষকরা কাজ করে আসছেন। অবশ্য, পেরেজের তোলা ছবিগুলো গবেষকসহ প্রায় সবাইকেই নতুন করে ভাবনার খোরাক দেবে। পেরেজের ভাষায়, ‘আমার সঙ্গে শীতের ঘৃণা এবং ভালোবাসার সম্পর্ক আছে। এই সময় আমার গাড়ি আর রাস্তা পরিস্কার করতে ভালো লাগে না। কিন্তু তুষারের ছবি তুলতে হলে তো আমাকে যেখানে তুষার পরে সেখানে যেতেই হবে।’

এই ধরনের আরও পোস্ট -
   

আরও খবর

TOP