বাংলাদেশ টাইম

প্রচ্ছদ» জাতীয় »বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের দেখতে তমব্রু সীমান্তে জাতিসংঘের প্রতিনিধিরা
বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের দেখতে তমব্রু সীমান্তে জাতিসংঘের প্রতিনিধিরা

Sunday, 29 April, 2018 01:02pm  
A-
A+
বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের দেখতে তমব্রু সীমান্তে জাতিসংঘের প্রতিনিধিরা
বাংলাদেশ টাইম : মিয়ানমার সেনাবাহিনীর নির্যাতনের মুখে জীবন বাঁচাতে পালিয়ে এসে বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের দেখতে আসা জাতিসংঘের প্রতিনিধিরা বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির তমব্রু সীমান্ত এলাকায় পৌঁছেছেন।

রোববার সকাল ৯টার দিকে তারা সেখানে যান বলে জানিয়েছেন কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেন।

তিনি জানান, তমব্রু সীমান্তের  শূন্যরেখায় আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের দেখতে সকালে সেখানে গেছেন জাতিসংঘের প্রতিনিধিরা। সেখান  থেকে তারা যাবেন উখিয়ার বালুখালী ও কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পে। সেখানে রোহিঙ্গাদের অবস্থা দেখবেন এবং তাদের সঙ্গে কথা বলবেন।

একই দিন বিকেলে কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ডি-৫ ব্লকে একটি দাতা সংস্থার কার্যালয়ে সাংবাদিকদের উদ্দেশে ব্রিফিং করার কথা রয়েছে।

বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের দেখতে জাতিসংঘের প্রতিনিধি দলটি শনিবার বিকেল সাড়ে ৪টায় একটি বিশেষ ফ্লাইটে সরাসরি কক্সবাজার বিমানবন্দরে পৌঁছায়। পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম প্রতিনিধি দলকে বিমানবন্দরে স্বাগত জানান। প্রতিনিধি দলের সদস্যরা এরপর উখিয়ার ইনানীতে হোটেল রয়েল টিউলিপের উদ্দেশে রওনা হন। রাতে তারা সেখানেই অবস্থান করেন। ওই হোটেলেই রাতে প্রতিনিধি দলের সদস্যরা জাতিসংঘের বিভিন্ন সংস্থা, রোহিঙ্গা শরণার্থী প্রত্যাবাসন কমিশনার এবং পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন।

কক্সবাজার জেলা প্রশাসন সূত্র জানিয়েছে, ২৪ সদস্যের প্রতিনিধি দলে রয়েছেন যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, রাশিয়া, চীন, ফ্রান্সসহ জাতিসংঘে নিরাপত্তা পরিষদের ১৫টি সদস্য দেশের প্রতিনিধি। এ ছাড়া দলে রয়েছেন নেদারল্যান্ডস, কুয়েত, বলিভিয়া, ইথিওপিয়া, কাজাখস্তান, পেরু, পোল্যান্ড, সুইডেন, সুইজারল্যান্ড, ত্রিনিদাদ অ্যান্ড টোবাগো, বার্বাডোজ, জর্ডান ও আইভরি কোস্টের প্রতিনিধি। 

রোববার বিকেলে ঢাকায় ফেরার কথা রয়েছে প্রতিনিধি দলটির। হোটেল র্যা ডিসনে প্রতিনিধি দলটির সম্মানে নৈশভোজের আয়োজন করছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী। সোমবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে প্রতিনিধি দলটির সাক্ষাৎ করার কথা রয়েছে। বাংলাদেশ সফর শেষে একই ইস্যুতে ৩০ এপ্রিল দু'দিনের সফরে মিয়ানমার যাবেন নিরাপত্তা পরিষদের সদস্য দেশের প্রতিনিধিরা। 

প্রসঙ্গত, মিয়ানমার সেনাবাহিনীর জাতিগত নিধনের মুখে গত বছরের ২৫ আগস্ট থেকে এ পর্যন্ত প্রায় সাত লাখ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। আগে থেকে আরও প্রায় চার লাখ রোহিঙ্গা বসবাস করছে। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের চাপের মুখে মিয়ানমার দমন-পীড়ন থামিয়ে বাংলাদেশের সঙ্গে সমঝোতা করে রোহিঙ্গাদের স্বদেশে প্রত্যাবাসনে রাজি হলেও এই প্রক্রিয়া শুরু করতে গড়িমসি করছে মিয়ানমার। ফলে আসন্ন বর্ষায় রোহিঙ্গা শরণার্থীদের পরিস্থিতি আরও বিপর্যয়কর হয়ে উঠতে পারে বলে আশঙ্কা পর্যবেক্ষকদের।

এই ধরনের আরও পোস্ট -
   

আরও খবর

TOP