বাংলাদেশ টাইম

প্রচ্ছদ» জাতীয় »কুমিল্লায় বোমা হামলায় তদন্ত কমিটি
কুমিল্লায় বোমা হামলায় তদন্ত কমিটি

Wednesday, 4 February, 2015 03:46am  
A-
A+
কুমিল্লায় বোমা হামলায় তদন্ত কমিটি
বাংলাদেশ টাইমঃ  কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে বাসে পেট্রোলবোমা হামলায় ৭ জন নিহতের ঘটনায় তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি করেছে জেলা প্রশাসন।

এদিকে নিহত সাতজনকে শনাক্তের পর ছয়জনের লাশ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।
এই ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে বলে জানিয়েছেন চৌদ্দগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) উত্তম চক্রবর্তী।

জেলা প্রশাসক মো. হাসানুজ্জামান কল্লোল সাংবাদিকদের জানান, এই হামলা তদন্তে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. গোলামুর রহমানকে আহ্বায়ক করে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে।

নিহতদের পরিবার ও আহতদের সরকারিভাবে সহায়তা দেয়া হবে বলেও জানান জেলা প্রশাসক।

নিহতরা হলেন- যশোর জেলা সদরের ঘোপ সেন্ট্রাল রোডের বাসিন্দা হাজী রুকনুজ্জামানের ছেলে গণপূর্ত বিভাগের ঠিকাদার নুরুজ্জামান পপলু (৫১), তার একমাত্র মেয়ে যশোর পুলিশ লাইন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর ছাত্রী নাইমা তাসনিন মাইশা (১৫), কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার গাইনাকাটা গ্রামের মৃত ছিদ্দিক আহম্মদের ছেলে আবু তাহের (৩৮) ও একই গ্রামের সালেহ আহম্মদের ছেলে আবু ইউসুফ (৫৫), নরসিংদীর পলাশ উপজেলার বালুরচর পাড়ার জসিম উদ্দিন মানিকের স্ত্রী আসমা আক্তার (৩৮) ও তার ছেলে মাহমুদুল হাসান শান্ত (১৩) এবং শরীয়তপুর জেলার ঘোষেরহাট থানার দক্ষিণ গজারিয়া গ্রামের প্রয়াত নজরখার ছেলে ওয়াসিম।

এদের মধ্যে ওয়াসিম ছাড়া বাকি ছয়জনের লাশ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর হয়েছে বলে জানান চৌদ্দগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) উত্তম চক্রবর্তী।

বিএনপি-জামায়াত জোটের হরতাল-অবরোধের মধ্যে এই নাশকতায় জড়িতদের গ্রেপ্তার দাবিতে মঙ্গলবার বিকালে ঘটনাস্থল মিয়াবাজারে প্রতিবাদ সভা করেছে স্থানীয় আওয়ামী লীগ।

স্থানীয় সংসদ সদস্য ও রেলপথমন্ত্রী মুজিবুল হক ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে আওয়ামী লীগের ওই প্রতিবাদ সমাবেশে যোগ দেন। রেলপথমন্ত্রী ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে স্থানীয় একটি হোটেলে পুলিশ ও প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে বৈঠক করেন। যে কোনো মূল্যে দুর্বৃত্তদের গ্রেপ্তারে রেলমন্ত্রী ওই বৈঠকে নির্দেশ দেন।

মঙ্গলবার ভোররাতে মিয়াবাজারের জগমোহনপুরে মহাসড়কে কক্সবাজার থেকে ঢাকাগামী ওই বাসে পেট্রোলবোমা ছোড়া হলে আগুন ধরে পুড়ে মারা যান সাত যাত্রী। এতে অগ্নিদগ্ধ হন ২৫ জন। যার মধ্যে ১০ জনকে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।

এই ধরনের আরও পোস্ট -
   

আরও খবর

TOP