বাংলাদেশ টাইম

প্রচ্ছদ» জাতীয় »খালেদা জিয়াকে রাখা হয়েছে নাজিম উদ্দিন রোডের পুরনো কারাগারের অফিস ভবনে
খালেদা জিয়াকে রাখা হয়েছে নাজিম উদ্দিন রোডের পুরনো কারাগারের অফিস ভবনে

Thursday, 8 February, 2018 04:45pm  
A-
A+
খালেদা জিয়াকে রাখা হয়েছে নাজিম উদ্দিন রোডের পুরনো কারাগারের অফিস ভবনে
বাংলাদেশ টাইম : বিএনপি চেয়ারপারন খালেদা জিয়াকে রাখা হয়েছে রাজধানীর নাজিম উদ্দিন রোডের পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারের অফিস ভবনে। মূল ফটক দিয়ে ঢুকে বাম পাশেই সিনিয়র জেল সুপারের অফিস কক্ষ ছিল এটি। সেখানেই তাকে রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বৃহস্পতিবার দুপুরে পাঁচ বছরের সাজা দেওয়ার পর তাকে সেখানে নেওয়া হয়।

কারা অধিদফতর সূত্র জানায়, পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারের মূল ফটকের ভেতরে বামপাশে যে দোতলা ভবনটি রয়েছে, তার নিচতলায় খালেদা জিয়াকে রাখা হয়েছে। সেখানে একসময় সিনিয়র জেল সুপারের অফিস কক্ষ ছিল। দোতলায় জেলারের বাসা ছিল। বর্তমানে সেখানে কোনও এয়ার কন্ডিশন নেই। তবে খাটসহ বিভিন্ন আসবাবপত্র রয়েছে। কাউকে থাকতে হলে যা যা দরকার সবই আছে সেখানে। এর আগে জানা গিয়েছিল তাকে এই কারাগারের ভেতরে নারী সেল এলাকার তিন তলা ভবনের ডে কেয়ার সেন্টারে রাখা হবে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত খালেদা জিয়াকে পুরনো কারাগারের অফিস ভবনেই রাখা হয়েছে।

কারা অধিদফতরের ঢাকা বিভাগের ডিআইজি (প্রিজন্স) তৌহিদুল ইসলাম বলেন, ‘কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী খালেদা জিয়াকে কারাগারের মূল ফটকের ভেতরে যে অফিস ভবন রয়েছে, সেখানেই তাকে রাখা হয়েছে। একজন প্রথম শ্রেণির বন্দির যেসব সুবিধা পাওয়ার কথা, সব সুবিধাই তাকে সেখানে দেওয়া হবে।’

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, আইনজীবীদের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে খালেদা জিয়ার গৃহকর্মী ফাতেমাকে তার সঙ্গে কারাগারে থাকার অনুমতি দিয়েছেন আদালত।  

দীর্ঘ ৩৬ বছরের রাজনৈতিক জীবনে খালেদা জিয়া এর আগে একবার কারাগারে যান। ২০০৭ সালের ৩ সেপ্টেম্বর সেনা সমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময় তাকে গ্রেফতার করা হয়েছিল। তখন তাকে জাতীয় সংসদ ভবন এলাকায় স্পিকারের বাসভবনকে সাবজেল ঘোষণা দিয়ে সেখানে রাখা হয়েছিল। ২০০৮ সালের ১১ সেপ্টেম্বর উচ্চ আদালতের এক আদেশে খালেদা জিয়া মুক্তি পান। দ্বিতীয় দফায় বৃহস্পতিবার (৮ ফেব্রুয়ারি) জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় পাঁচ বছরের সাজা হওয়ার পর তাকে রাজধানীর নাজিম উদ্দিন রোডের পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে নেওয়া হলো।

এই ধরনের আরও পোস্ট -
   

আরও খবর

TOP