বাংলাদেশ টাইম

প্রচ্ছদ» খেলা »বিশ্বকাপের বাকি আর ৭০ দিন: ভুড়িওয়ালা লেভেরকের অবিশ্বাস্য ক্যাচ
বিশ্বকাপের বাকি আর ৭০ দিন: ভুড়িওয়ালা লেভেরকের অবিশ্বাস্য ক্যাচ

Saturday, 6 December, 2014 05:54  
A-
A+
বিশ্বকাপের বাকি আর ৭০ দিন: ভুড়িওয়ালা লেভেরকের অবিশ্বাস্য ক্যাচ
হ্যালোটুডে ডেস্ক : দরজায় কড়া নাড়ছে বিশ্বকাপ। চূড়ান্ত হয়ে গেছে দিনক্ষণ। এখন শুধু অপেক্ষার পালা। ফেব্রুয়ারী-মার্চে অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ড যৌথভাবে আয়োজন করবে বিশ্বকাপ ক্রিকেটের ১১তম আসর। যে আসরে সামিল হবে বাংলাদেশও। স্বাগতিক দুই দেশে ১০০দিন আগে থেকেই শুরু হয়েছে ক্ষণগণনা। আর তাই নষ্টালজিক করে তুলছে বিশ্বকাপের সেই সব ইনিংস এবং স্মরণীয় মূহুর্তগুলো। এরই ধারাবাহিকতায় আজ থাকছে ২০০৭ ওয়েস্ট ইন্ডিজ বিশ্বকাপে প্রথম অংশ নেওয়া বারমুডার ডোয়াইন লেভেরকের এক হাতে নেওয়া রবিন উথাপ্পার অবিশ্বাস্য সেই ক্যাচ নেওয়ার গল্প।

পেশায় পুলিশ। বিশাল ভুড়ি তার! শরীরের ওজন ১২৭ কেজি। ভাবছেন খেলাধুলার মধ্যে পুলিশ, ওজন, এসব আসছে কেত্থেকে! বিশ্বকাপে শুধু ব্যাট-বলের উত্তেজনাই ছড়ায় না, মাঝে মাঝে ভুতুড়ে সব কান্ডও ঘটায়!

এই যেমন ধরুন, ডেয়াইন লেভেরক। এই ভদ্রলোক চাকরি করেন পুলিশে। সেই লেভেরকই বারমুডার হয়ে প্রতিনিধিত্ব করলেন ২০০৭ বিশ্বকাপে।

শখের বশে বিশ্বকাপ খেলতে আসা লেভেরক ভারতের বিপক্ষে স্লিপে দাঁড়িয়ে এক হাতে ক্যাচ নিয়ে এমন ভোঁ দৌড় দিলেন, বাকি সবাই তাকে ধরতে পিছু ধাওয়া করলো। যারা বিশ্বকাপের ওই ম্যাচ দেখেছেন নিশ্চয় তাদের মনে থাকার কথা, স্লিপে দাঁড়িয়ে রবিন উথাপ্পার ক্যাচ নিয়ে কী দৃশ্যর অবতারণা করেছিলেন তিনি সেদিন।

ভারত ম্যাচের আগে গ্রুপ পর্বে শ্রীলংকার কাছে বড় ব্যবধানে হেরেছে বারমুডা। ভারত আরও জটিল সমীকরণের মুখে দাঁড়িয়েছিল। রাহুল দ্রাবিড়ের দলও যে বাংলাদেশের কাছে হেরে বসে আছে! সুপার এইটে ওঠার আশা জিইয়ে রাখতে বারমুডার বিপক্ষে ভারতের দরকার ছিল বড় জয়।

তা আগে ব্যাট করে বিরেন্দ্র শেবাগের বিস্ফোরক সেঞ্চুরির সৌজন্যে ৫ উইকেটে ৪১৩ রান তুলে সেটাই করলো ভারত। লেভেরকের ওই বিখ্যাত দৌড়ের ঘটনা ঘটলো ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারে যখন বল করতে এলেন ১৭ বছরের মালাচি জোনস। তার প্রথম ডেলিভারিটা মোকাবেলা করার সময় উথাপ্পাকে বেশ নার্ভাসই দেখাচ্ছিল ওই সময়।

পরের বলে ব্যাট চালিয়ে দিলেন উথাপ্পা। অপ্রত্যাশিতভাবেই বল জমা পড়লো প্রথম স্লিপে দাড়িয়ে থাকা লেভেরকের হাতে। অবিশ্বাস্যভাবে তিনি ক্যাচটি লুফে নিলেন এক হাতে। এরপর লেভেরককে ঘিরে গোটা বারমুডা দল যা করলো তাতে মনে হলো তারা বিশ্বকাপই জিতে ফেলেছে! আর তার ক্যাচ হয়ে থাকলো বিশ্বকাপেরই অন্যতম সেরা বিনোদনাময়ী ক্যাচ হিসেবে।

শেষ অবধি ম্যাচটি ভারত জিতে নিল ২৫৬ রানে। যেটি ওয়ানডে ক্রিকেটে বড় জয়ের রেকর্ড। যে জোনসের বলে সেই বিখ্যাত ক্যাচ নিয়েছিলেন লেভেরক সেই তিনি ৭ ওভারে ৭৪ রান দিয়ে আর কোন উইকেট পাননি। বাঁ-হাতি স্পিনে ১০ ওভারে ৯৬ রান দিয়েছেন লেভেরক। বিশ্বকাপ ইতিহাসে এটি দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ব্যয়বহুল বোলিং। এতকিছুর পরও বারমুডার কাছে বিশ্বকাপে খেলাই ছিল দারুন রোমাঞ্চকর।

এই ধরনের আরও পোস্ট -
   

আরও খবর

TOP