বাংলাদেশ টাইম

প্রচ্ছদ» খেলা »বায়ার্নকে পিছনে ফেলে ফাইনালে রিয়াল
বায়ার্নকে পিছনে ফেলে ফাইনালে রিয়াল

Wednesday, 2 May, 2018 08:45am  
A-
A+
বায়ার্নকে পিছনে ফেলে ফাইনালে রিয়াল
বাংলাদেশ টাইম : রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে আক্রমণাত্মক ফুটবলে আরও একবার আধিপত্য দেখালো বায়ার্ন মিউনিখ। তবে বারবার চিত্রপট পাল্টানো রোমাঞ্চকর ম্যাচে গোলরক্ষক স্ভেন উলরাইশের মারাত্মক এক ভুল পার্থক্য গড়ে দিল। টানা তৃতীয়বারের মতো চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে উঠলো জিনেদিন জিদানের দল।
সান্তিয়াগো বের্নাবেউয়ে মঙ্গলবার রাতে সেমি-ফাইনালের ফিরতি পর্ব ২-২ ড্র হয়। তবে গত সপ্তাহে আলিয়াঞ্জ অ্যারেনায় ২-১ গোলে জেতা রিয়াল ৪-৩ অগ্রগামিতায় ফাইনালে ওঠে।

ইউরোপ সেরার মঞ্চে রিয়ালের বিপক্ষে টানা পাঁচ হারের বৃত্ত ভেঙে ফাইনালে ওঠার লক্ষ্যে শুরুটা ভালোই করেছিল বায়ার্ন। হার এড়াতে পারলেও শেষটা সুখকর হলো না। করিম বেনজেমার জোড়া গোলে আরও একটি ফাইনালে পা দিল টানা দুবারের চ্যাম্পিয়নরা।

ঘরের মাঠে দলকে এগিয়ে দেওয়া জসুয়া কিমিচ ফিরতি পর্বের শুরুতেও জালের দেখা পেলেন। তৃতীয় মিনিটে ডান দিক থেকে আসা ক্রস গোলমুখে ফেরাতে পারেননি সের্হিও রামোস। বল চলে যায় ছয় গজ বক্সের বাইরে জার্মান ডিফেন্ডারের পায়ে। ঠান্ডা মাথায় কোনাকুনি শটে গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন তিনি।

পাল্টা জবাব দিতে দেরি করেনি রিয়াল। একাদশ মিনিটে দূর থেকে মাতেও কোভাসিচের বাড়ানো ক্রস নিয়ন্ত্রণে নিয়ে ছয় গজ বক্সে ক্রস দেন মার্সেলো। হেডে বল ঠিকানায় পাঠান অরক্ষিত করিম বেনজেমা।

৩৩তম মিনিটে ফের এগিয়ে যেতে পারতো বায়ার্ন। কিন্তু রবের্ত লেভানদোভস্কির কোনাকুনি শট কেইলর নাভাস পা দিয়ে ঠেকানোর পর আলগা বল গোলমুখে পেয়ে সুযোগ নষ্ট করেন হামেস রদ্রিগেস। ৩৯তম মিনিটে রোনালদোর শট ঝাঁপিয়ে কর্নারের বিনিময়ে ঠেকান গোলরক্ষক।
প্রথম লেগের মতো নিজেদের মাঠে প্রথমার্ধেও বলের দখল পেতে লড়াই করতে দেখা যায় রিয়ালকে। বিরতির ঠিক আগে আরও বিপদে পড়তে পারতো তারা। কিমিচের ক্রসে বল মার্সেলোর হাতে লাগলে পেনাল্টির জোরালো আবেদন করে অতিথিরা। তবে রেফারির সাড়া মেলেনি।

প্রতিপক্ষের গোলরক্ষকের হাস্যকর ভুলে দ্বিতীয়ার্ধের প্রথম মিনিটেই উপহারস্বরূপ গোলটি পায় স্বাগতিকরা। ফরাসি মিডফিল্ডার তোলিসোর ব্যাকপাস ঠেকাতে গিয়ে তালগোল পাকিয়ে ফেলেন বায়ার্নের দ্বিতীয় পছন্দের গোলরক্ষক উলরাইশ। তাকে ফাঁকি দিয়ে বল চলে যায় গোলমুখে, ছুটে গিয়ে অনায়াসে বাকি কাজটুকু সারেন বেনজেমা।

পাঁচ মিনিট পর দাভিদ আলাবার শট ডিফেন্ডার রাফায়েল ভারানের পায়ে লেগে জালে ঢুকতে যাচ্ছিল। দারুণ ক্ষিপ্রতায় ঝাঁপিয়ে ঠেকান কেইলর নাভাস। খানিক পর সহজ দুটি সুযোগ নষ্ট করেন রোনালদো। গোলমুখে বলে পা লাগাতে ব্যর্থ হওয়ার পর মার্সেলোর ক্রস ফাঁকায় পেয়ে উড়িয়ে মারেন পর্তুগিজ ফরোয়ার্ড।

৬৩তম মিনিটে ম্যাচে সমতা টানেন হামেস রদ্রিগেস। তার প্রথম শট ভারানের পায়ে প্রতিহত হওয়ার পর ফিরতি বল পেয়ে দুরূহ কোণ থেকে নীচু শটে গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন। গোলটি অবশ্য উদযাপন করেননি এ মৌসুমের শুরুতে বের্নাবেউ থেকে জার্মান ক্লাবটিতে ধারে খেলতে যাওয়া কলম্বিয়ার এই মিডফিল্ডার।
৭৪তম মিনিটে নাভাসের নৈপুণ্যে আরেক দফা বেঁচে যায় রিয়াল; তোলিসোর কোনাকুনি শট ঝাঁপিয়ে ঠেকান তিনি। শেষ কয়েক মিনিট রিয়ালের রক্ষণে একচেটিয়া চাপ ধরে রেখেও কাঙ্ক্ষিত সাফল্য আর পায়নি বায়ার্ন।

অপর সেমি-ফাইনালের ফিরতি পর্বে বুধবার মুখোমুখি হবে লিভারপুল ও রোমা। ওই লড়াইয়ের বিজয়ীর সঙ্গে আগামী ২৬ মে ইউক্রেনের কিয়েভে ফাইনালে লড়বে রেকর্ড ১২ বারের চ্যাম্পিয়ন রিয়াল মাদ্রিদ।

এই ধরনের আরও পোস্ট -
   

আরও খবর

TOP